সোমবার বিকাল ৩:৫৫, ৩রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ. ১৭ই জুন, ২০২৪ ইং

সরাই‌লে স্কু‌লের প্র‌বেশপ‌থে মা‌ছের বাজার

৩৬০ বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল-নাসিরনগর-লাখাই আঞ্চলিক সড়কের পাশে উপজেলা সদরের উচালিয়াপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রবেশপথে বসে মাছের বাজার। প্রতিদিন ভোর ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ঢালা সাজিয়ে মাছ বিক্রি করতে বসে ব্যবসায়ীরা। ফলে ক্রেতা-বিক্রেতাদের ভীড়ে কোমলমতি স্কুল শিক্ষার্থীরা স্কুলে প্রবেশ করতে ভোগান্তিতে পড়তে হয়। এছাড়া মাছের নোংরা পানি আর ময়লা আবর্জনার দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ স্কুলের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা। দুর্গন্ধ এড়াতে নাকে হাত দিয়ে চেপে ধরে স্কুলে প্রবেশ করতে দেখা গেছে শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের।

স্কুলের পঞ্চম শ্রেনির শিক্ষার্থী মেরাজ মিয়া, মেহেদী হাসান, জাহিদুল ইসলাম, জাকারিয়া বলেন, স্কুল গেইটে মানুষের ভীড়ের কারণে বিদ্যালয়ে প্রবেশ করতে মাছের পঁচা পানির দূর্গন্ধে মাথা ঘুরায়,বমি বমি লাগে। তাই তারা দুর্গন্ধের কথা মনে পড়লে স্কুলে যেতে ইচ্ছে হয়না তাদের । ওই স্কুলের পঞ্চম শ্রেনির ছাত্রী মাহাবীয়ার বাবা আলামিন মিয়া জানান,তার মেয়ে প্রায়ই বাড়িতে এসে অভিযোগ করে বিদ্যালয়ে ক্লাস করার সময় নাকে পঁচা মাছের গন্ধ লাগে। সহ্য করতে পারে না। বিষয়টি তিনি প্রধান শিক্ষককে জানিয়েছেন। মাছ ব্যবসায়ী দুলাল মিয়া জানান, আগে ব্যবসায়ী কম ছিল। এখন বেশী হওয়ার কারণে স্কুল গেইট পর্যন্ত বসতে হয়।

প্রধান শিক্ষক মোছা.শামসুন নাহার সুলতানা হক জানান, দুই বছর আগে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে মাছ বাজারটি এখান থেকে সরিয়ে নিলেও করোনার বন্ধের সুযোগে আবার নতুন করে বড় পরিসরে শুরু করেছে ব্যবসায়ীরা। স্কুলের দক্ষিণ পাশের দু’টি রুমে মাছ বাজারের দুর্গন্ধে ক্লাস করা যায় না। শিক্ষার্থীরা বাড়িতে গিয়ে তাদের অভিভাবকদের কাছে ওই দুর্গন্ধের জন্য অভিযোগ করে। ছাত্র ছাত্রীরা বিদ্যালয়ে আসতে চায় না। দুর্গন্ধের কারণে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে শিক্ষকদের।

শেখ মোঃ ইব্রাহীম: সহ-সম্পাদক

 

Some text

ক্যাটাগরি: মতামত

[sharethis-inline-buttons]

Leave a Reply

আমি প্রবাসী অ্যাপস দিয়ে ভ্যাকসিন…

লঞ্চে যৌন হয়রানি