বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭:৫৬, ১২ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ. ২৫শে এপ্রিল, ২০২৪ ইং

ভবিষ্যৎ বাস্তবতা এবং বর্তমান কল্পনা

৫১২ বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

যার অন্তরে ভয়, সে বাহিরে ভয় পায় (কাজী নজরুল ইসলাম)।

আপনি যদি নিজের মনের মাঝে ভয়কে লালন করেন তাহলে বাহিরের ভয় আপনাকে স্পর্শ করবে এটাই স্বাভাবিক। আগে নিজের মনের ভয় দূর করুন।

আজকের বর্তমান বিশ্ব একটি মহামারি করনার কবলে পতিত একটি বিশ্ব। যার কবলে জীবন ঝরে যাচ্ছে লাখো কোটি মানুষের। করনা থেকে মুক্তি পাওয়ার উপায় বলা চলে সচেতনতা।কারণ কোনো মেডিসিন আবিষ্কার হয়নি এখনো। সূত্র বলছে ৫০+ বয়সের মানুষের এই মহামারিতে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভবনা বেশি। তবে, ছোট বড় কেউ কিন্তু রেহাই পাচ্ছে না এই মহামারি থেকে।

দেখুন বিশ্ব আজ নিস্তব্দ,নাই কোনো হানাহানি,মারামারি,যুদ্ধ,রেষারেষি, নেই কোনো খুন, অত্যাচার, জুলুম, নাই নারীর সম্মান নিয়ে কোনো অত্যাচার। বিরাজ করছে সেই একত্ববাদ রবের প্রতি সাহায্য কামনার হাতগুলো।

আজ কোথায় তোমার সৈন্য সেনা? কোথায় সেই ৬ হাজার জাহাজে বসবাস কারী আমেরিকার যুদ্ধের বীর সেনারা? আজ কোথায় বিশ্বের ক্ষমতাশীন দেশের রাজত্ব? আজ কে আছো তোমার পারমাণবিক বোমা,অস্ত্র,গোলা বারুদ,বিমান যত সব কিছু দিয়ে রুখবে করনাকে?

কোথায় তোমাদের সেই রাজত্ব যা অন্য দেশ এবং বিভিন্ন অসহায় মানুষের উপর প্রয়োগ করতে? আজ কেন হুংকার শুনা যায় না? যায় না শুনা কোনো কলহ? আজ কে করিল গোটা পৃথিবীর মানুষকে চার দেয়ালে বন্ধি? আজ কার মহিমায় পাঁচ ওয়াক্ত নামাজে মসজিদে নামাজি মানুষের বীর? কত শত হাজার প্রশ্নের উত্তর শুধু একজন যিনি সারা বিশ্বের অধিপতি মহান রব্বুল আলামিন।
আজ বিশ্ব অবাক চোখে তাকিয়ে প্রভু।

তোমার ক্ষমতার কাছে আমরা বিলিন হয়ে যাবো রব। আমাদের পাপ ক্ষমা করে দাও। এই জাতিকে ধ্বংশ করো না হেদায়াত দেও প্রভু। তায়েফের ময়দানে রাসুল বললে তায়েফবাসী নিশ্চিন্ন করে দিতে পারতে। রাসূল ধ্বংশ না হেদায়াত চেয়েছে।
হে খোদা আমাদের একটা সুযোগ দাও হেদায়াত দাও, রহমতের চাদরে ঢেকে নাও প্রভু। আমাদের প্রতি একটু রহমতের দৃষ্টিতে তাকাও প্রভু।

হে প্রভু এমন মরণ দিওনা আমাদের যে মরণে দেখতে পাবো না প্রিয়জনকে,থাকবে না দেহের ধ্বংশাবশেষ, যে মরণে গোসল হবে না,জানাজা হবে না,কবর হবে কি না তাও জানি না। কাছে আসবে না কোনো আপনজন,কাঁদবে না দু চোখের পানি ফেলে, ধরবে না কেউ আমার লাশের খাট। দিবে না আপনজন কেউ মাটি।

আমি কখনো চাইনা প্রভু এই মরণ। সৃষ্টির সেরা জীবকে এভাবে তুমি বিলিন করো না রব…. নিস্তব্দ আজ বিশ্ব,তুমি ক্ষমার দৃষ্টিতে এই পাপিদের ক্ষমা করে দাও।
আমার সোনার বাংলায় যদি লাশের মিছিল শুরু হয় তবে, ধ্বংশ হয়ে যাবে তোমার সোনার বাংলার লাখো কোটি মুসলিম প্রভু। প্রতিনিয়ত অবস্থা খুব ভয়াবহ যা হৃদয় ভেঙ্গে দেয় প্রভু। তুমি এই মৃত্যু দিয়ে হাসরের দিন পাপের হিসাব চাইলে কি জবাব দিবো প্রভু?
আগামিতে করনার ফলে ধমকে দাঁড়াবে বিশ্ব। হারাবে সবাই খুব কাছের মানুষ গুলো,ব্যথায় ব্যথিত হয়ে কাতরে মরবে হাজারো মানুষ।এই সব কিছু থেকে মুক্তি দাও,রক্ষা করো আমাদের।

সচেতন হোন,সুস্থ থাকুন,জনসমাগম ত্যাগ করুন,করনা মোকাবেলায় নির্দেশনা গুলো পালন করুন, বিশ্বের অবস্থার দিকে তাকিয়ে হলেও ভয়ে প্রভুকে ডাকুন। ভয়কে জয় করুন,আত্মবিশ্বাসকে বাড়িয়ে তুলুন। আল্লাহ নিশ্চয়ই আমাদের বিলিন করবেন না যদি আমরা তাওবা করে তার দেখানো সরল পথে চলি।

রাসেল মাহমুদ : সংবাদকর্মী, দেশ দর্শন, ভোলা

Some text

ক্যাটাগরি: চিন্তা, নাগরিক সাংবাদিকতা

[sharethis-inline-buttons]

Leave a Reply

আমি প্রবাসী অ্যাপস দিয়ে ভ্যাকসিন…

লঞ্চে যৌন হয়রানি