বৃহস্পতিবার বিকাল ৫:৩০, ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ. ১৩ই জুন, ২০২৪ ইং

পানির দরে বিক্রি হচ্ছে দুধ: দিশেহারা কৃষক ও খামারি

৬৯২ বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

নিজের চিলেকোঠার কৃষি জমিতে সামান্য চাষাবাদ আর দু’টো দুধেল গাইয়ের দুধ বিক্রি করে চার সন্তানের মুখে কোনোমতে শাকান্নের যোগান দেন মোখলেছ মিয়া। শুধু মোখলেছ মিয়াই নয়, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে রয়েছে মোখলেছ মিয়ার মতো অসংখ্য দরিদ্র পরিবার। সামান্য কৃষিকাজ ও গরু-বাছুর লালনপালন আর দুধ বিক্রি করে চলে যাদের সংসার।

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসের মহামারীতে বিপর্যস্ত মোখলেছ মিয়াদের সংসার। যে দুধ বিক্রয়ের টাকা দিয়ে চলে নিত্যপন্যের যোগান, সেই দুধ করোনার প্রভাবে নবীনগরের বিভিন্ন বাজারে বিক্রয় হচ্ছে পানির দরে। নবীনগর উপজেলার সলিমগঞ্জ, শ্রীঘর, মানিকনগর, শ্যামগ্রাম, মাঝিয়ারা, রসুল্লাবাদ, কালঘরা, রতনপুর, শাহপুরসহ পূর্বাঞ্চলের বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা যায়, দুধ বিক্রয় হচ্ছে ২৫ থেকে ৩৫ টাকা দরে।

ভূষি খইলসহ গোখাদ্যের মূল্য যেখানে করোনা সংকটের কারনে বৃদ্ধি পেয়েছে, সেখানে কমে গেছে দুধের দাম! দুধ বেচে গোখাদ্য ও সংসারের প্রয়োজনীয় পন্যের যোগান আসে যে খামারি ও কৃষকের,তারা হয়ে পড়েছে দিশেহারা। কথা হয় শ্যামগ্রাম বাজারে দুধ বিক্রয় করতে আসা রাজা মিয়া, অলি মিয়া, ভজন সরকার,খাইরুল মিয়া সহ আরো অনেকের সংগে। তারা হতাশার সুরে জানান, “দুধ বেচার ট্যাহা দিয়া গরুর খাওনই কিনন যায়না, সংসারের বাজার করুম ক্যমনে? করোনাভাইরাসে না মরলেও এবার অভাবে মরতে অইবো দেখতাছি! ”

করোনার প্রভাবে দুধের ন্যায্যমূল্য না পাওয়ায় অভাব দেখা দিয়েছে এসব কৃষক ও খামারির সংসারে।

Some text

ক্যাটাগরি: মতামত

[sharethis-inline-buttons]

Leave a Reply

আমি প্রবাসী অ্যাপস দিয়ে ভ্যাকসিন…

লঞ্চে যৌন হয়রানি