সোমবার রাত ২:৫৮, ১০ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ. ২৩শে জুন, ২০২৪ ইং

ইতালির প্রাচীনতম শহর তরিনো

৭৩২ বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

ইতালির প্রাচীনতম শহর তরিনো। খুবই সুন্দর প্রাকৃতিক সৌন্দর্যমণ্ডিত পাহাড়বেষ্টিত এই শহর। এ যেন প্রকৃতির নিজের হাতে সাজানো একটি শহর। একদিকে নদী, অন্যদিকে পাহাড়। একশত বছরের পুরনো ট্রামগুলো চলছে রাস্তার মাঝখান দিয়ে। মনে হয় হাজার বছরের পুরনো এক শহরের মাঝখান দিয়ে চলছি আমি। পাখির কোলাহল, নদীর পানির কলতান- সব মিলিয়ে এক অপূর্ব সৌন্দর্যের লীলাভূমি। সত্যিই অবাক হওয়ার মত।

এখানে রয়েছে আঠারোশ’ খ্রিস্টাব্দের এক রানীর বাড়ি এবং বিদ্রোহীদের সাজা দেওয়ার সেই আস্তানা। আরো রয়েছে নানা রকমের পার্ক। রয়েছে সাড়ে তিন হাজার ফুট উঁচু পাহাড়, জলবিদ্যুৎ উৎপাদনের টেকনোলজি। সবকিছুই নজর কাড়ার মতো।

ইটালির প্রাচীনতম শহর তরিনোতে দাঁড়িয়ে লেখক

আর মানুষগুলো খুবই বন্ধুসুলভ। তবে বিভিন্ন সমাজের মানুষ এখানে বাস করে। প্রবাসীদের মাঝে সবচেয়ে বেশি মরক্কো, তিউনিসিয়া, আফ্রিকা- এসব এলাকার মুসলমান ইমিগ্র্যান্টরা। তারপরে আছে বাংলাদেশ-পাকিস্তান ও ইন্ডিয়ানরা ইটালিয়ানদের সাথে মিলেমিশে এক বন্ধুসুলভ পরিবেশে সবাই বসবাস করে। শীতকালে একটু বেশি শীত পড়ে। ইউরোপের তুলনায় তেমন বেশি নয়। মাইনাস পাঁচ থেকে দশডিগ্রি পর্যন্ত নভেম্বর-ডিসেম্বর মাসে হয়।

ইতালিয়ান আফ্রিকা ও ইন্ডিয়ান কমিউনিটি মিলে। ভালোই আছে সবাই। আরো আছে চাইনিজ কমিউনিটি। সবচেয়ে মজার ব্যাপার চাইনিজরা বাংলাদেশের অনেক সবজি চাষ করে এবং বাংলা ভাষায় বাঙ্গালীদের কাছে বেচার জন্য ডাকাডাকি করে। আমার কাছে খুবই অবাক লেগেছে, যখন কোন চাইনিজ আমাকে বলে- লাউ নেবেন, লাউ! হেসে এগিয়ে গিয়ে জিজ্ঞেস করলাম, কোথা থেকে তুমি শিখেছো এ ভাষা? বুঝতে পারল, কিন্তু উত্তর বাংলায় দিতে পারল না।

তখন ইটালিয়ান ভাষায় বলল, বাঙালি বন্ধুদের কাছ থেকে। তবে তাদের দেশেও এই সবজি নাকি আছে। আজকাল আমাদের বাঙালি ভাইয়েরাও জমি লিজ নিয়ে সবজির চাষাবাদ করছে এবং এই সবজি শুধু বাঙালি নয়, পাকিস্তান, ইন্ডিয়া, চাইনিজ- সবাই ক্রয় করে। যেমন লাউ, শিম, ধনিয়া পাতা, গাজর, টমেটো- এগুলি বেশি চাষ করে।

যা হোক, সবকিছু মিলিয়ে আমার এই ভ্রমণ অনেক আনন্দঘন ছিল। আজ আর বেশি কিছু লিখছি না। পরবর্তীতে আবার আরেকটি শহর সম্বন্ধে লিখব।

এইচ এম জাকারিয়া জাকির : সহকারী সম্পাদক, দেশ দর্শন

Some text

ক্যাটাগরি: খবর, নাগরিক সাংবাদিকতা

[sharethis-inline-buttons]

Leave a Reply

আমি প্রবাসী অ্যাপস দিয়ে ভ্যাকসিন…

লঞ্চে যৌন হয়রানি