রবিবার সকাল ১১:০১, ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ. ১৪ই জুলাই, ২০২৪ ইং

খাল ভরাট করে দোকান ও বাড়ী নির্মাণ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মধ্যপাড়ায়

৭৯৮ বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

মধ্যপাড়ার তালতলা খালটির এখন খুবই করুণ দশা। খালের বর্জ্যে বাড়ছে পলিথিন, কলাগাছ, প্লাস্টিক ও বাড়ী-ঘরের আবর্জনা। তাই বর্ষার সময় সামান্য বৃষ্টিতেই তৈরী হয় জলাবদ্ধতা। তখন মধ্যপাড়া (পশ্চিম-দক্ষিণ) এলাকার বিভিন্ন গলির রাস্তা গুলো দিয়ে চলাফেরা করতে পথিকদের বেশ বেগ পেতে হয়।

 

ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার মধ্যপাড়ায় খালের ৭৫ ভাগ অংশ অবৈধভাবে দখল করে দোকানপাট, বাসাবাড়ী, কালভার্ট ও সরু ড্রেন নির্মাণ করছেন স্থানীয় প্রভাবশালী লোকজন। এতে হুমকির মুখে পড়েছে খালটির অস্তিত্ব। বাধাগ্রস্থ হচ্ছে অবাধ পানির প্রবাহ। চিরতরে নষ্ট হতে চলেছে আশপাশের পরিবেশও ভারসাম্য। এই খালটি স্থানীয়দের কাছে “তালতলার খাল” নামে পরিচিত ছিল।

আখাউড়া শহিদ স্মৃতি সরকারী কলেজের ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের শিক্ষক মিসেস জুনু খাদেম মন্তব্য করেন, খাল-বিল-নদী-নালা-পুকুর ও ডোবা দখল করা প্রাকৃতিক পরিবেশের সঙ্গে একধরনের শত্রুতা। এতে জলজ জীববৈচিত্র্য ও প্রাকৃতিক পরিবেশের ভারসাম্য নষ্ট হয়। খাল-বিল-নদী-নালা-ডোবা ও পুকুর দখলের প্রতিযোগিতা অবশ্যই বন্ধ হওয়া উচিৎ। সরেজমিনে দেখা যায়, মধ্যপাড়া বাস স্ট্যান্ড  থেকে পৈরতলা সিএনবি ব্রিজ পর্যন্ত খালের ৭৫ ভাগ জায়গা ভরাট করে স্থানীয় প্রভাবশালীরা অবৈধভাবে গড়ে তুলেছে ঘর-বাড়ী, দোকানপাট, ইট-বালি ও প্রাইভেটকারের ব্যবসা। এসব ঘর-বাড়ী ও দোকানপাটের বর্জ্যে খালের পানি দুষিত হচ্ছে।

এ খালটি গিয়ে মিশেছে টাউন খালের সঙ্গে। এক সময় এই খাল দিয়ে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা নবীনগর, আশুগঞ্জ, বিজয়নগর, আখাউড়া ও কসবা থেকে নিয়মিতভাবে মালপত্র আনা-নেওয়া করতো। স্থানীয় বাসিন্দা রুহুল আজাদ খান, আবুল বাসেদ, মাহাবুবুর রহমান বাহার, বিজয় পাল, রামু পাল, তুলশি পালসহ আরো অনেকের কাছ থেকে জানা যায়, আজ থেকে প্রায় ২০/২৫ বছর পূর্বে এই খালে বর্ষাকালে শিশু-কিশোর ও যুবারা গোসল করতো এবং মনের আনন্দে সাঁতার কাটতো এবং নায়র-নায়রিরা বেড়াতে আসতো। এসব এখন ধূসর অতীত।

মধ্যপাড়া তালতলা খালটি মাটি ফেলতে ফেলতে সরু করে ফেলা হয়েছে

সরেজমিনে আরো জানা যায়, ইতিমধ্যে উত্তর পৈরতলার বর্ধন বাড়ীর খাল, মধ্যপাড়ার খনকার বাড়ীর খাল, বিরাসার বিশ্বরোড খাল ও খৈয়াশারের কবরস্থান খালগুলি স্থানীয়দের দখলে চলে গেছে। সেখানে নতুন ভাবে গড়ে উঠেছে বড় বড় মার্কেট, সুউচ্চ বাড়ী ও কাঁচা বাজার।

সবশেষে তালতলা খালটিকে ড্রেনে পরিণত করা হয়েছে

মধ্যপাড়ার তালতলা খালটির এখন খুবই করুণ দশা। খালের বর্জ্যে বাড়ছে পলিথিন, কলাগাছ, প্লাস্টিক ও বাড়ী-ঘরের আবর্জনা। তাই বর্ষার সময় সামান্য বৃষ্টিতেই তৈরী হয় জলাবদ্ধতা। তখন মধ্যপাড়া (পশ্চিম-দক্ষিণ) এলাকার বিভিন্ন গলির রাস্তা গুলো দিয়ে চলাফেরা করতে পথিকদের বেশ বেগ পেতে হয়।

এলাকার জনগণের দুর্ভোগের কথা বিবেচনা করে পৌর মেয়র ও উপজেলা প্রশাসন যৌথ ভাবে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান চালালে খালটি সংস্কার করা সহজ হবে। এলাকাবাসী আরো মনে করেন প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপে তালতলা খালটিতে অবধ পানি চলাচলের উপযুকাত হলে মধ্যপাড়া মহল্লার জলাবদ্ধতা বহুলাংশে কমে যাবে।

খায়রুল আকরাম খান : ব্যুরো চীফ, দেশ দর্শন

 

Some text

ক্যাটাগরি: মতামত

[sharethis-inline-buttons]

Leave a Reply

আমি প্রবাসী অ্যাপস দিয়ে ভ্যাকসিন…

লঞ্চে যৌন হয়রানি