বৃহস্পতিবার দুপুর ২:২০, ১২ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ. ২৫শে এপ্রিল, ২০২৪ ইং

আমাদের দেশে অনিয়মই যেন নিয়ম

৬৬৬ বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ১ টি

আমাদের দেশে যেন অনিয়মই নিয়ম। কাউকে উপদেশ দিতে যাবেন অথবা ভাল কথা বলবেন, সে আপনাকে আড়চোখে দেখবে। ভাববে, নিশ্চয় বেচারার কোনো স্বার্থ আছে। অবশ্য এরও যথেষ্ট কারণ আছে। সাধারণত এমন উপদেশ দেওয়া ব্যক্তিরাই কোনো না কোনো ফন্দি আটে।

সেদিনের একটি কথা, তুর্ণা নিশীথায় ঢাকা থেকে আসছি। অমার স্ট্যান্ডিং টিকেট আছে। তাই খাবারের বগিতে দাঁড়িয়ে আছি। খাবার সরবরাহকারী একজন কর্মী এসে আমাকে বসার জন্য সাদরে আমন্ত্রণ জানাল। আমি দিব্যি বসে পড়লাম। কারণ আমি অনেক ক্লান্ত। একটু পরে টের পেলাম, তার ফন্দিত অন্য রকম। সে সিটগুলো লোকজনের কাছে বিক্রি করে টাকা নিচ্ছে। আর লোকজনও তার থেকে চড়া মূল্যে আসনগুলো কিনে নিচ্ছে। এরই মধ্যে সে আমার কাছে এসে সালাম দিয়ে বলল, ভাই, টাকা দিতে হবে। আমিও উৎসুক ভঙ্গিতে বললাম, কত দিতে হবে? সে বলল দুইশ টাকা।

আমি অনেকটা অবাক হয়ে বললাম, আমার কাছে তো টিকেট আছে। সে বলল, ব্যাপার না। এখানে বসার জন্য দুইশ টাকা দিতে হবে। আমি বললাম, ডেকে এনে বসিয়ে তুমি এখন টাকা দাবি করছ কেন? মূলত এই আসনগুলো র্নিধারিত- খাবারের জন্য। আমি তার সাথে বাকবিতণ্ডার সময়ই দুজন এসে তাকে টাকা দিয়ে গেল। তখন আমি তাদেরকে জিজ্ঞেস করলাম, আপনার কি টিকেট আছে? তারা জবাবে বলল, হ্যা, আছে। তাহলে টাকা দিলেন কেন? বলল, এটাই নিয়ম। তখন ভাবলাম, হায়রে মানুষ, অনয়িমটাকেই নিয়ম বানিয়ে ফেলল!

আরেকটি ঘটনা মনে পড়ছে। বেশ কিছুদিন আগে, রোহিঙ্গাদের নিয়ে রিপোর্ট করে আসার পথে আমার সাথে দুজন  বিদেশী সাংবাদিক সহকর্মী ছিলেন। তারা বলল, চল, চট্টগ্রাম নিউর্মাকেটে ঘুরে আসি। যাওয়ার পথে রাস্তা ক্রসিংয়ের সময় ভাবলাম, ফুট-ওভারব্রিজ দিয়ে যাই। কারণ সভ্য কোনো দেশে মাঝ পথ দিয়ে মানুষ রাস্তা পারাপার হয় না। এই ভেবে আমি তাদেরকে নিয়ে ফুট-ওভারব্রিজ দিয়ে রওয়ানা দিলাম। ওভার ব্রিজের শেষ মাথায় গিয়ে দেখি, হকাররা দোকান বসিয়ে দিব্যি বেচা-কেনা করছে। তারপর আমি তাদেরকে একটু রাস্তা দেওয়ার জন্য অনুরোধ করলে সে আমাকে বলল, অপনি কি পাগল হইছেন যে এইটার ওপর দিয়ে আইছেন? তখন মনে মনে হেসে একটা গল্প মনে পড়ল যে, পাগলের রাজ্যে ভাল মানুষকেও পাগল মনে হয়। এ রকম নানা অনিয়ম অমাদের চারপাশে অহরহ ঘটছে। যেমন- লালবাতিতে গাড়ি চালানো, এম্বুলেন্সকে জায়গা না দেওয়া, স্কুল-হাসপাতালের সামনে জোরে হর্ণ বাজানো ইত্যাদি। এ সকল অনিয়মগুলোকে আমরা নিয়ম হিসেবে মেনে নিচ্ছি।

তাই আসুন, আমরা সবাই সচেতন হই। সর্বপ্রকার অনিয়মকে সমাজ থেকে দূর করে একটি সুন্দর দেশ ও জাতি গঠন করি।

এইচ এম জাকারিয়া জাকির

সহকারী সম্পাদক : দেশ দর্শন ডটকম

Some text

ক্যাটাগরি: মতামত

[sharethis-inline-buttons]

১ কমেন্ট “আমাদের দেশে অনিয়মই যেন নিয়ম

Leave a Reply

আমি প্রবাসী অ্যাপস দিয়ে ভ্যাকসিন…

লঞ্চে যৌন হয়রানি