রবিবার বিকাল ৫:২৮, ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ. ১৯শে মে, ২০২৪ ইং

লালমনিরহাট জেলার পাঁচ উপজেলার ভোটের চিত্র

৭২১ বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

১ম পর্যায়ে লালমনিরহাটের ৫টি উপজেলায় ৫ম উপজেলা পরিষদ নিবার্চন অনুষ্ঠিত হবে ১০ মার্চ। ৫টি উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ১৭, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২৩ ও সংরক্ষিত মহিলা ভাই চেয়ারম্যান পদে ২১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধিতা করন। প্রার্থীরা নিজস্ব প্রতীকে ব্যাপক হারে প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছে ।তারপরেও জেলার সাধারন ভোটারদের মাঝে নেই নিবার্চনী উদ্দীপনা যেন কোথায় যেন ভোটের আমেজটা হারিয়ে ফেলেছে বাঙ্গালী!

প্রার্থীরা জনসাধারনের মাঝে নির্বাচনীর উৎসাহ সৃষ্টির লক্ষ্যে কাক-ডাকা ভোর হতে গভীর রাত পর্যন্ত জনগণের দুয়ারে দুয়ারে যাচ্ছেন এবং তাদের ভোট ও দোয়া চেয়ে বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন। লালমনিরহাট সদর উপজেলায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী নজরুল হক পাটোয়ারী ভোলা (নৌকা) ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী কামরুজ্জামান সুজন (আনারস) এই ২ প্রার্থীর মাঝে প্রতিদ্বন্ধিতা হওয়ার সম্ভাবনা আছে বলে এলাকাবাসীর দাবী ।আদিতমারীতে উপজেলা আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী সাপ্টীবাড়ী ডিগ্রী কলেজের শিক্ষক রফিকুল আলম (নৌকা) ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী প্রায়াত আওয়ামী লীগ নেতা সুরুজ তনয় ইমরুল কায়েস ফারুক (মটর সাইকেল) এই দুই প্রার্থীর মাঝে প্রতিদ্বন্ধিতা হবে কিন্তু প্রচারনায় কেউ পিছিয়ে নেই ।একদিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক  অপরদিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির ভাতিজা ইমরুল কায়েস ফারুক হওয়ায় তৈরী হয়েছে আওয়ামী লীগের  গ্রুপিং।

কালীগঞ্জ উপজেলায় আওয়মী লীগ মনোনিত প্রার্থী মাহাবুবুজামান আহমেদ (নৌকা) ও জাতীয় পার্টির মনোনিত প্রার্থী শাহ্ সুলতান মোঃ নাসির (লাঙ্গল) এই দুই প্রার্থীর মাঝে প্রতিদ্বন্ধিতা হবে। মাহবুবুজামান আহমেদ সমাজ কল্যান মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদের ভাই ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান হওয়ার সুবাদে তিনি এগিয়ে রয়েছেন অনেকটা।

হাতীবান্ধা উপজেলায় ৪ জনের মধ্যে প্রতিদ্বন্ধিতা হবে। সতন্ত্র প্রার্থী সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি মশিউর রহমান মামুন (ঘোড়া) অনেকটা প্রচারণায় এগিয়ে থেকে মানুষের মন জয় করেছেন। বিদ্রোহী প্রার্থী আলমগীর হোসেন রন্টু (আনারস) মোতাহার হোসেন এমপির চাচাত ভাই হওয়ার সুবাদে প্রচারনায় অনকেটা এগিয়ে রয়েছেন। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান বদিউজ্জামান ভেলু (মটরসাইকেল) মার্কা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন। তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হওয়ায় নিবার্চনে প্রচারনায় অনেকটা সুবিধা জনক অবস্থানে রয়েছেন। অপরদিকে আওয়ামী লীগের মনোনিত প্রার্থী লিয়াকত হোসেন বাচ্চু (নৌকা) প্রার্থী হয়ে কিছুটা পিছিয়ে রয়েছেন। সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হওয়ার সুবাদে বর্তমানে তিনি ব্যাপক হারে প্রচারনা চালিয়ে আবারো চেয়ারম্যান হওয়ার লক্ষ্যে অনবরত কাজ করে যাচ্ছেন।

পাটগ্রাম উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী রুহল আমিন বাবুল (নৌকা) ও সতন্ত্র প্রার্থী সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ওয়াজেদুল ইসলাম শাহীন (আনারস) এই দুই প্রার্থীর মধ্যে প্রতিন্দন্ধিতা হবে বলে এলাকাবাসীর দাবী । তবে রুহুল আমিন বাবুল পর পর ২ বার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান থাকার সুবাদে এলাকার অনেক উন্নয়ন করেছেন বিধায় তিনি প্রচরনায় অনেকটাই এগিয়ে রয়েছেন বলে এলাকাবাসীর দাবী।

Some text

ক্যাটাগরি: নাগরিক সাংবাদিকতা, মতামত

[sharethis-inline-buttons]

Leave a Reply

আমি প্রবাসী অ্যাপস দিয়ে ভ্যাকসিন…

লঞ্চে যৌন হয়রানি