মঙ্গলবার রাত ১:৪৯, ১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ. ২৭শে মে, ২০২৪ ইং

সাহিত‍্যের স্বরুপ

৬৯৩ বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

প্রবল প্রবনতায় আমরা অনেক কিছুই করি । এবং যা করি প্রত‍্যেক‌ই নিজ নিজ স্বাতন্ত্র্যবোধ থেকেই করি । সাহিত‍্য চর্চা তার ব‍্যতিক্রম নয় । সাহিত্য হলো প্রাণের বাসিন্দা । আত্মার আহার ।

সাহিত্য যুগে যুগেই মানুষের মন জয় করেছে । মানুষকে হাঁসিয়েছে, কাঁদিয়েছে । খুশিতে উদ্বেলিত করেছে, ভাসিয়েছে নয়ন জলেও । ঘুম পাড়িয়েছে, ঘুম ভাঙ্গিয়েছে ।

মাথায় হাত বুলানো মায়ের পরশে শিশুকে ঘুম পাড়াতে সাহিত্যের যেমন অবদান আছে । তেমনি ঘুমন্ত কোন জাতিকে অদম‍্য চেতনায় জাগিয়ে তুলতে‌ও সাহিত্যের ভূমিকা অতুলনীয় । এটি যাপিত জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ । যেমন- কায়া’র অংশ ছাঁয়া ।

সাহিত‍্য হলো অলংকার। ভাষার অলংকার । রূপসী রমণীর বদনে শোভিত অলংকারের মত ।

একটা সময় ছিল যখন একটা কথাকে দশ হাত ঘুরিয়ে বলতে পারাটাকে সাহিত‍্য এবং বিশেষ যোগ‍্যতা ভাবা হতো । আমার শ্রদ্ধেয় উস্তায, সময়ের শ্রেষ্ঠ সাহিত‍্যিক ‘মাওলানা যাইনুল আবিদীন’ হাফি: এটাকে আন্ত:নগর ট্রেনের সাথে সাদৃশ্য করেছেন । তিনি এর নাম দিয়েছেন ‘ট্রেনবাক‍্য’ ।

কিন্তু বর্তমান পাঠকদের চাহিদা হলো ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র বকুল ফুল আর মুক্তা দিয়ে গ্রথিত মালার মত । আমি এর নাম দিয়েছি ‘বাইকবাক‍্য’ । যা আকৃতিতে ছোট হলেও গতি অনেক ।

কালের আবর্তে এর পরিমান কোথায় গিয়ে ঠেকে বলা মুশকিল ।

Some text

ক্যাটাগরি: মতামত

[sharethis-inline-buttons]

Leave a Reply

আমি প্রবাসী অ্যাপস দিয়ে ভ্যাকসিন…

লঞ্চে যৌন হয়রানি