বৃহস্পতিবার বিকাল ৩:৫৩, ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ. ১৩ই জুন, ২০২৪ ইং

ঠাকুরগাঁওয়ে করোনা ভ্যাকসিন কার্যক্রম উদ্বোধন

২৫৭ বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

ঠাকুরগাঁওয়ে করোনার ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়। গতকাল শনিবার পৌর শহরের হাজীপাড়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মো: মাহবুবুর রহমান। কেন্দ্রগুলিতে টিকাগ্রহনকারী ব্যক্তিদের উপচে পরা ভীড় লক্ষ্য করা যায়।
পৌরসভার আয়োজনে ভ্যাকসিন কার্যক্রম উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন জেলা প্রশাসক মো: মাহবুবুর রহমান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন, সিভিল সার্জন ডা: মাহফুজার রহমান সরকার, পৌর মেয়র আঞ্জুমান আরা বেগম বন্যা, জেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা দেওয়ান মোর্শেদ কামাল, ঠাকুরগাঁও প্রেস কাবের সভাপতি মনসুর আলী, সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা: ফারুক হোসেন, পৌরসভার সচিব রাশেদুর রহমান, পৌর কাউন্সিলর আতাউর রহমান প্রমুখ। এ সময় ভ্যাকসিন গ্রহনকারী ও কার্যক্রমের সাথে জড়িত স্বাস্থ্যকর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন।

সিভিল সার্জন ডা: মাহফুজার রহমান সরকার বলেন, সারা দেশের ন্যয় ঠাকুরগাঁও জেলাতেও অত্যন্ত উৎসবমূখর পরিবেশে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে ও শান্তিপুর্নভাবে টিকাদান কর্মসূচী পালিত হচ্ছে। আজ জেলায় মোট ৩৭ হাজার ৮শ জনকে ভ্যাকসিনের আওতায় আনা হবে। জেলার ৫৩টি ইউনিয়নে ৫৩টি ও পৌরসভার ৩০টি সহ মোট ৮৩টি কেন্দ্রে ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রম চলবে। তবে ঠাকুগরাঁও সদর উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে টিকাদান কার্যক্রম আজ হবে না, আগামীকাল ওই ৭টি ইউনিয়নে টিকাদান কর্মসচী চলবে। পরে তিনি জেলার অন্যান্য উপজেলায় ভ্যাকসিন কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।
জেলা প্রশাসক মো: মাহবুবুর রহমান ও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন পৌর শহরের হাজীপাড়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র পরিদর্শন করে জানান, পুরো জেলায় শান্তিপুর্নভাবে ভ্যাকসিন কার্যক্রম চলছে। এই কর্মসূচীর অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে সামনের গণটিকাদান কর্মসূচী পালন করা হবে। সর্বশেষ নির্দেশনায় ২৫ বছরের উর্দ্ধে যে কেউ টিকা গ্রহন করতে পারবেন।
তবে প্রবীন, প্রতিবন্ধী ও নারীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। পূর্ব থেকে রেজিষ্ট্রেশন করা না থাকলে নতুন করে শীটে নাম, মোবাইল নাম্বার ও প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে টিকা গ্রহন করতে পারবে যে কেউ। ক্রমান্বয়ে সবাই এ ভ্যাকসিনের আওতায় আসবেন এবং দ্বিতীয় ডোজ শেষে টিকা সনদ গ্রহন করতে পারবেন।

পৌর মেয়র আঞ্জুমান আরা বেগম বন্যা বলেন, এই কেন্দ্র থেকে টিকাদান কর্মসূচী উদ্বোধন করা হলো। আজ পৌরসভার ১২টি ওয়ার্ডে একযোগে কার্যক্রমের আওতায় প্রত্যেক ওয়ার্ডে ২শ জন করে ভ্যাকসিন প্রদান করা হয়। সাধারন মানুষজন আগ্রহের সাথে টিকা গ্রহন করছেন। প্রত্যেক কেন্দ্রে মানুষের উপচেপরা ভীড় লক্ষ্য করা যায়।
অপরদিকে পৌর শহরের ৪নং ওয়ার্ড সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় টিকাদান কেন্দ্রে ব্যতিক্রমী বিষয় চোখে পরে। সেখানে টিকা গ্রহনকারী ব্যক্তিদের ওয়ার্ড কাউন্সিলর সুদাম সরকারের ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে একটি করে স্যানিটাইজার ও মাস্ক প্রদান করা হয়। এছাড়াও সদর উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউপি কার্যালয়ের সামনে ভ্যাকসিন কার্যক্রম উদ্বোধন করেন ইউপি চেয়ারম্যান মো: সোহাগ হোসেন। এ সময় টিকাগ্রহনকারী ব্যক্তিদের দীর্ঘ লাইন করে দাড়িয়ে থাকতে দেখা যায়।

Some text

ক্যাটাগরি: নাগরিক সাংবাদিকতা

[sharethis-inline-buttons]

Leave a Reply

আমি প্রবাসী অ্যাপস দিয়ে ভ্যাকসিন…

লঞ্চে যৌন হয়রানি