বৃহস্পতিবার সকাল ৭:৪৪, ১০ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ. ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ইং

স্বাধীন বাংলা সাহিত্য পরিষদের ৩য় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত

৪১৪ বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

‘শুদ্ধ সাহিত্য চর্চাই হোক সম্প্রীতির বন্ধন’ শ্লোগান সামনে নিয়ে এগিয়ে চলা নবীন প্রবীণ কবিদের প্লাটফর্ম স্বাধীন বাংলা সাহিত্য পরিষদের ৩য় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ও গুণীজন সংবর্ধনা-২০২১ এর জমকালো সাহিত্যের প্রোগ্রামটি গতকাল বিকেল ৩ টা থেকে রাত ১০ টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়ে গেল ইন্জিনিয়ারিং ইন্সটিটিউট মিলনায়তন, রমনা, ঢাকায়। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ছুটে আসা কবি ও সাহিত্যানুরাগী গুণীজনদের ভিড়ে কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে ওঠে হলরুমটি। সম্মানিত অতিথিদের আগমনের সাথে সাথে নির্দিষ্ট সময়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়।  আস্তে আস্তে কবিদের আবৃত্তি, আলোচনা ও গানে এক নান্দনিক পরিবেশ সৃষ্টি হয় পুরো সময় জুড়ে।

স্বাধীন বাংলা সাহিত্য পরিষদের ৩য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও গুণীজন সংবর্ধনা-২০২১  আজকের এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে আসন অলংকৃত করেছেন সাহিত্য অনুরাগী মাননীয় প্রতিমন্ত্রী ডাঃ মোঃ এনামুর রহমান, এমপি (গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়)। উদ্ভোদক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শুদ্ধতার কবি অসীম সাহা, একুশে পদক প্রাপ্ত কবি ও দৈনিক জবাবদিহির সম্পাদক।

প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কবি ও অভিনেতা এবিএম সোহেল রশিদ। বিশেষ আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কবি টিপু রহমান, প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক জাতীয় কবি পরিষদ। বিশেষ আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কবি মোসলেহ উদ্দিন, প্রতিষ্ঠাতা প্রধান নির্বাহী, প্রিয়জন সাহিত্য পরিষদ। সভাপতিত্ব করেছেন কবি মুন্সি কবির হোসেন, উপদেষ্টা, স্বাধীন বাংলা সাহিত্য পরিষদ।

অনুষ্ঠানটি পরিচালনার সমন্বয়ক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কবি কে এম সফর আলী, প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক স্বাধীন বাংলা সাহিত্য পরিষদ। শুভেচ্ছা বক্তব্য রেখেছেন কবি ফেরদৌসী আক্তার নদী, উপদেষ্টা, স্বাধীন বাংলা সাহিত্য পরিষদ। অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনায় ছিলেন তাসনিয়া রহমান, মেঘলা জান্নাত, মাসুম ও নূর তাজ।

সার্বিক তত্বাবধানে স্বাধীন বাংলা সাহিত্য পরিষদের সিনিয়র পরিচালক কবি হাফিজুর রহমান হাফিজ ও সম্মানিত সদস্যবৃন্দ। মাননীয় প্রতিমন্ত্রীর উপস্থিতিতে সাহিত্যের বিভিন্ন দিক নিয়ে গঠনমূলক ও বর্তমান সময়ের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে মুল্যবান আলোচনা করেন অনুষ্ঠানের উদ্ভোদক একুশে পদকপ্রাপ্ত শুদ্ধতার কবি অসীম সাহা।

তরুন কবিদের লেখায় অনুপ্রেরণা  ও সৃষ্টির সমৃদ্ধি নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি মাননীয় প্রতিমন্ত্রীর কাছে কবিদের জীবিত অবস্থায় সম্মান ও সাহিত্যের অনুষ্ঠান পরিচালনা করার জন্য কবি ভবনের দাবি নিয়ে আলোচনা করেন প্রধান আলোচক কবি এবি এম সোহেল রশিদ, বিশেষ আলোচক কবি টিপু রহমান, বিশেষ আলোচক কবি মোসলেহ উদ্দিন, আলোচক কবি জহিরুল হক বিদ্যুৎ। অনুষ্ঠানের সভাপতি কবি মুন্সি কবির ও অনুষ্ঠানের সমন্বয়ক কবি কেএম সফর আলী বিষয়টির উপর বক্তার বক্তৃতা শোনার পাশাপাশি আসনে বসে মাননীয় প্রতিমন্ত্রীকে বিষয়টির উপর মনোযোগ আকর্ষণ করেন।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মাননীয় প্রতিমন্ত্রী ডাঃ মোঃ এনামুর রহমান, এম পি ( গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী) কবিদের সম্মান ও দাবির কথা আমলে এনে তিনি জাতির গঠনে, আগামীর  দিকনির্দেশনায়, স্বাধীনতার যুদ্ধে, জাতিকে অন্ধকার থেকে আলোর পথে, অজ্ঞতা থেকে  জ্ঞানের পথের দিশারি হিসেবে  কবিদের ভূমিকার ভুয়সী প্রশংসা করেন। পাশাপাশি তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে কবি ভবনের দাবি তুলে ধরে জমি বরাদ্দের প্রতিশ্রুতি আদায়ে সক্ষম হবে বলে আশা ব্যক্ত করেন। এবং কবিদের অসহায় মুহূর্তে যেন পাশে থেকে তাকে সাহায্য করা যায় সে ব্যাপারে ট্রাস্টি গঠন করার পরিকল্পনাও তিনি আমাদের মাঝে তুলে ধরেন। কবি সাহিত্যিকদের প্রতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিরঙ্কুশ ভালোবাসার কথা তুলে ধরেন শ্রদ্ধাভরে।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, আইন বিশেষজ্ঞ আলহাজ্ব ড. শরিফ সাকি, কবি আমিনুল ইসলাম, কবি ইশতিয়াক  হোসেন, কবি গুল আফরোজ, কবি মাহামুদা বেগম সিমু, কবি আমির হোসেন, কবি জাহিদ মাহমুদ, কবি বজলুল করিম, কবি আরিফুর রহমান, কবি আলমগীর জুয়েল, কবি রোকসানা সুখী, মাদক মুক্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়া চাই’র সভাপতি- কবি মাহফুজুর রহমান পুষ্প, কবি সায়েজ বদরুল সহ আরো অনেকে।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে মাননীয় প্রতিমন্ত্রীর উপস্থিতি তে গুণিজনদের সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান পর্ব ধৈর্যের সহিত সম্পন্ন করা হয়। মাঝামাঝি সময়ে স্বাধীন বাংলা সাহিত্য পরিষদের পক্ষ থেকে সকল কবিদের মধ্যে হালকা খাবার ও পানীয় বিতরণ করা হয়। সবশেষে কবিদের দাবি আমলে নিয়ে বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতির কথায় মাননীয় প্রতিমন্ত্রী ডাঃ মোঃ এনামুর রহমান, এমপির প্রতি কৃতজ্ঞতার সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন স্বাধীন বাংলা সাহিত্য পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক কবি কে এম সফর আলী ও অনুষ্ঠানের সভাপতি কবি মুন্সি কবির হোসেন।

Some text

ক্যাটাগরি: নাগরিক সাংবাদিকতা

[sharethis-inline-buttons]

Leave a Reply

আমি প্রবাসী অ্যাপস দিয়ে ভ্যাকসিন…

লঞ্চে যৌন হয়রানি