রবিবার রাত ৮:৩৫, ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ. ১৯শে মে, ২০২৪ ইং

ঠাকুরগাঁওয়ে ব্র্যাকের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক দারিদ্র্য বিমোচন দিবস উদযাপন

৫১২ বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

ঠাকুরগাঁওয়ে আন্তর্জাতিক দারিদ্র্য বিমোচন দিবস (১৭ই অক্টোবর, ২০১৯) উপলক্ষ্যে বিশ্বের বৃহত্তম বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাক বাংলাদেশসহ আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অক্টোবর মাসব্যাপী নানা কার্যক্রম হাতে নিয়েছে।

এরই অংশ হিসেবে সোমবার (১৪ অক্টোবর) ঠাকুরগাঁও জেলায় ব্র্যাকের আলট্রা-পুওর গ্র্যাজুয়েশন প্রোগ্রামের ফটো সেশন উদ্বোাধন করেন এবং মাঠ কার্যক্রম পরিদর্শন করেন জেলা প্রশাসক ড.কেএম কামরুজ্জামান সেলিম।

তিনি ব্র্যাকের উল্লেখিত কর্মসূচির অংশগ্রহণকারীদের বাড়ি পরিদর্শন করেন এবং তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন।ব্র্যাকের কর্মসূচিকে দারিদ্র্য নিরসনে গুরুত্বপূর্ণ উদ্যোগ বলে অভিহিত করলেন জেলা প্রশাসক ।

এসময় তাঁর সঙ্গে আরও উপস্থিত ছিলেন প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা,আলতাফ হোসেন,শিশু বিষযক কর্মকর্তা মোহা:জবেদ আলী,প্রেসক্লাবের সভাপতি মনসুর আলী, সমাজ সেবা কর্মকর্তা শরিফুল ইসলা প
মুখ।

এছাড়াও ব্র্যাকের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন-ডিভিশনাল ম্যানেজার -মো: ছিদ্দিকুর রহমান, এ্যাডভাইজার এ্যাডভোকেসি-টিন জাহিদ হোসেন, আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক-দীপক চন্দ্র সরকার,জেলা ব্যাক প্রতিনিধি গোলাম মোস্তফা,জোনাল ম্যানেজার-ফজলুল হক প্রমুখ।

দেশজুড়ে অতিদারিদ্র্য নিরসনে ব্র্যাকের ভূমিকার প্রশংসা করে জেলা প্রশাসক বলেন, ‘ব্র্যাকের মত সঠিকভাবে সদস্য নিবার্চন করা গেলে দেশ থেকে দারিদ্র্য নিরোসন করা সময়ের ব্যাপার ।

এছাড়াও সরকারের পাশাপাশি সহযোগি সংস্থাসমুহ এগিয়ে এলে দেশ থেকে চরম দারিদ্র নিমুর্ল করা যাবে। তিনি আরো বলেন, কষ্ট করে সম্পদ ্অর্জন করলে তার ফলাফল টেকসই হয়। আপনারা নিজেদেও ছেলে মেয়েদের সঠিক শিক্ষায় শিক্ষিত করবেন,এরাই আগামীতে দেশ পরিচালনায় নেতৃত্ব দিবে।”

জাতিসংঘ এ বছরের আন্তর্জাতিক দারিদ্র্য বিমোচন দিবসের মূল প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করেছে ‘পরিবার, শিশু ও সমাজের ক্ষমতায়ন, সকলের অংশগ্রহণে দারিদ্র্য বিমোচন’ দিবসটিকে কেন্দ্র করে ব্র্যাকের আলট্রা-পুওর গ্র্যাজুয়েশন প্রোগ্রাম ঠাকুরগাঁও জেলাসহ বর্তমানে কর্মসূচিটি চলমান রয়েছে এরকম সকল জেলার (৪৩টি) জেলা প্রশাসনের সহায়তায় সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসক মাঠকার্যক্রম পরিদর্শন আয়োজন করেছে।

ব্র্যাকের পক্ষ থেকে জানানো হয়, তাদের এই উদ্যোগের লক্ষ্য হচ্ছে, সরকারের মাঠপর্যায়ে তথা জেলা প্রশাসক আলট্রা-পুওর গ্র্যাজুয়েশন প্রোগ্রাম বিষয়ে সম্যক ধারণা দেওয়া এবং জেলা পর্যায়ে সংশ্লিষ্ট সরকারি প্রতিষ্ঠানসমূহের কাছে কর্মসূচিটির অভিজ্ঞতা লব্ধ জ্ঞান তুলে ধরা। যা ভবিষ্যতে সরকারের সঙ্গে সমন্বিতভাবে কাজ করার পরিবেশ তৈরিতে অবদান রাখবে।

একই সঙ্গে বাংলাদেশ থেকে অতিদারিদ্র্য দূরীকরণে আলট্রা-পুওর গ্র্যাজুয়েশন প্রোগ্রাম কীভাবে অবদান রাখতে পারে, সে বিষয়ে জেলা প্রশাসক এবং অন্যান্য সরকারি কর্মকর্তাদের পরামর্শ গ্রহণ করা,যা ব্র্যাকের ভবিষ্যত করণীয় নির্ধারণে সহায়ক হবে ।

উল্লেখ্য যে, ঠাকুরগাঁও জেলায় ২০০৪ সালে আলট্রা-পুওর গ্র্যজয়েশন প্রোগ্রামের কার্যক্রম শুরু হয়। ২০১৮ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত জেলাটির ২৪৩২৪টি অতিদরিদ্র পরিবার ব্র্যাকের আলট্রা-পুওর গ্র্যাজুয়েশন প্রোগ্রামের আওতায় এসেছে।

২০১৯ সালে ঠাকুরগাঁও জেলায় এই কর্মসূচিটিতে অংশ নিচ্ছে ৩টি উপজেলার ১৮২৫ টি অতিদরিদ্র পরিবার। ২০০২ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশের ৪৭টি জেলার বিশ লক্ষের বেশি অতিদরিদ্র পরিবার আলট্রা-পুওর গ্র্যাজুয়েশন প্রোগ্রামের আওতায় এসেছেন যাদের ৯৫% কর্মসূচি শেষ হয়ে যাওয়ার পর দীর্ঘমেয়াদেও তাদের আর্থ সামাজিক উন্নয়নের ধারা বজায় রাখতে সক্ষম হয়েছে।

নূর-ই-আলম ::ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:

Some text

ক্যাটাগরি: খবর

[sharethis-inline-buttons]

Leave a Reply

আমি প্রবাসী অ্যাপস দিয়ে ভ্যাকসিন…

লঞ্চে যৌন হয়রানি