সোমবার বিকাল ৪:২০, ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ. ২৭শে মে, ২০২৪ ইং

আটক সাংবাদিকদের মুক্তির দাবিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মানববন্ধন

৭৬৫ বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

দৈনিক যুগান্তরের কেরানীগঞ্জের প্রতিনিধি আবু জাফর ও চট্রগ্রামের লোহাগড়া প্রতিনিধি সেলিম উদ্দিনের দ্রুত মুক্তিসহ আরও ৪ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার এবং ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় সাংবাদিকদের গ্রেফতার ও হয়রানির প্রতিবাদে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মানববন্ধন-প্রতিবাদ কর্মসুচী পালন করেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সাংবাদিক সমাজ।

আজ বুধবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন ও প্রতিবাদ কর্মসুচীর আয়োজন করা হয়। এ সময় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সকল অনলাইন, প্রিন্ট ও ইলেট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবের সভাপতি খ. আ. ম. রশিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন- ব্রাহ্মণবাড়িয়া টেলিভিশন জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মনজুরুল আলম, সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন জামি, প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আ. ফ. ম. কাউসার এমরান, দৈনিক সমকালের নিজস্ব প্রতিবেদক আব্দুন নূর, মানবজমিনের নিজস্ব প্রতিবেদক জাবেদ রহিম বিজন, সংগ্রামের প্রতিনিধি সৈয়দ মো. আকরাম, যুগান্তরের জেলা প্রতিনিধি শফিকুল ইসলাম প্রমুখ। সঞ্চালনা করেন প্রেসক্লাবের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি আল আমীন শাহীন।

এ সময় বক্তারা কারাবন্দি সাংবাদিক আবু জাফর ও সেলিম উদ্দিনের মুক্তির দাবি জানিয়ে বলেন, বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে সাংবাদিকদের জন্য বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন। আইনমন্ত্রী আনিসুল হক সাংবাদিক সমাজকে আশ্বস্ত করেছিলেন যে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে কোনো সাংবাদিককে হয়রানি করা হবে না। কিন্তু দেশের বিভিন্ন স্থানে এই কালো আইনের মামলায় সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে।

অবিলম্বে কারাবন্দি ওই দুই সাংবাদিককে মুক্তি দিয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল না করা হলে দেশে সাংবাদিক সমাজ আন্দোলন গড়ে তুলবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন বক্তারা।

সায়মন ওবায়েদ শাকিল : বিশেষ প্রতিনিধি

Some text

ক্যাটাগরি: খবর, নাগরিক সাংবাদিকতা

[sharethis-inline-buttons]

Leave a Reply

আমি প্রবাসী অ্যাপস দিয়ে ভ্যাকসিন…

লঞ্চে যৌন হয়রানি